ট্রেন্ডিং নিউজ

এবার লাইভ লোকেশন শেয়ারিং ফিচার নিয়ে এলো উবার!

পেপল এর দেশে না আসা নিয়ে স্যাটায়ার!

এ পর্যন্ত সবচেয়ে বেশী বিক্রি হওয়া ২০ টি মোবাইল হ্যান্ডসেট!

আপনার ঘরের নতুন অতিথির আগমন বার্তা জানাবার কিছু অভিনব উপায়!

এ্যাপল ঘোষণা করলো আইফোন টেন! যাতে নেই কোন হোম বাটন!

শুক্রবার ২৪ নভেম্বর, ২০১৭

এ্যাপলের ম্যাকবুক প্রো – এবার ”টাচ বার” প্রযুক্তি নিয়ে!

গত বছরের নভেম্বরে বাজারে এসেছে এ্যাপলের বহুল প্রতিক্ষীত হাই এন্ড ল্যাপটপ লাইন “ম্যাকবুক প্রো” এর নতুন তিনটি মডেল। এবারে এর সাথে যে প্রযুক্তি থাকছে, সেটি বিশ্ব এর আগে কখনো দেখেনি। সরাসরি ল্যাপটপের সাথে টাচ স্ক্রিনের মতো টাচ সেনসিটিভ বার, যেটাকে F বা ফাংশন কি এর বদলে অত্যন্ত দৃষ্টিনন্দন আর বুদ্ধিদীপ্তভাবে ব্যবহার করা হয়েছে। গত চার বছরে এ্যাপল এই প্রথম তাদের ম্যাকবুক প্রো তে বড় ধরনের পরিবর্তন আনলো।

macbook-pro-touch-bar-best-features

এ্যাপল এর মাস দুয়েক আগে তাদের আইফোন থেকে হেডফোনের জ্যাক সরিয়ে সমালোচকদের এবং ব্যবহারীদের ভীষনরকমের তোপের মুখে পড়ে, এবং এ্যাপল এই কাজটা করতে সিদ্ধহস্ত। সিডি থেকে শুরু করে হেডফোন জ্যাক, কিংবা শুরু থেকেই ফ্লাশ (Flash) প্রযুক্তি ব্যবহার না করা, তবে এবার তাদের টাচবারটির ভূয়ষী প্রশংসা শোনা যাচ্ছে চারিদিকে। অবশ্য এবারও এ্যাপল যথারীতি তাদের পুরনো ম্যাকবুক ইউজারদের চটিয়েছেন, কারন নতুন মডেলের কোন ম্যাকবুকেই ইউএসবি-টু/থ্রি পোর্ট থাকছে না। বদলে থাকছে ইউএসবি-সি, যার কারনে ব্যবহারকারীদেরকে আলাদা করে একটা কনভারটার কিনতে হতে পারে।

macbook-pro-control-stripn-icons

নতুন মডেলের এই ম্যাকবুকগুলোকে বলা হচ্ছে, এ্যাপলের বানানো সবচাইতে চিকন ডিজাইনের ল্যাপটপ। আগের তুলনায় শতকরা প্রায় ২০ ভাগ চিকন এই পন্যগুলোকে বলা হচ্ছে, এ্যাপল এসব বাজারে ছেড়েছে মাইক্রোসফটের সাম্প্রতিক তুমুল জনপ্রিয় পণ্য সারফেস প্রো সিরিজের ল্যাপটপের সাথে টেক্কা দিতে।

macbook_20touch_20bar-0

এই ম্যাকবুকে টাচবার ছাড়াও আরো ছোটখাটো আপগ্রেড রয়েছে। যেমনঃ এর ডিজাইন আগের যে কোন মডেলের চাইতে চিকন ও হালকা, এর ডিসপ্লেও আরোও অনেক উন্নত,  ট্র্যাকপেডটি একদম নতুন ধরনের, এমনকি পাওয়ার বুষ্টেও উল্লেখযোগ্য উন্নতি আনা হয়েছে। এছাড়া এতে রযেছে টাচ আইডি রিকগনিশন প্রযুক্তি, এ্যাপলের নতুন দিককার মডেলের আইফোন এবং আইপ্যাডে যেমনটা রয়েছে আর কি।

hello-again-event-macbook-pro-touch-bar

তিন মডেলের ভেতর প্রথম মডেলটি ১৩ ইঞ্চি স্ক্রিনের, তিনটির ভেতর সবচাইতে সস্তা এটি। এই কারনে এটিতে নেই কোন টাচ বার কিংবা টাচ আইডি। দাম পড়বে টাকার মানে ভেন্ডরভেদে ১ লাখ ৩০ থেকে দেড় লাখ। টাচ বারের বদলে এতে রয়েছে সেই আগের ফাংশনকিগুলো। এতে রয়েছে চারটির বদলে দুটি ইউএসবি-সি পোর্ট। এর প্রসেসরও অপেক্ষাকৃত দুর্বল। এরপর রয়েছে ১৩ এবং ১৫ ইঞ্চি স্ক্রিনওয়ালা ম্যাকবুক – যেগুলোতে টাচবার এবং টাচ আইডি দুটোই রয়েছে, আর রয়েছে চারটি করে ইউএসবি-সি পোর্ট! ডিসপ্লে এবং প্রসেসর দুটোই উন্নত। দাম পড়বে টাকার মানে ভেন্ডরভেদে ১ লাখ ৮০ থেকে দুই লাখ ৭০ হাজারের মতো।

apple-macbook-pro-touch-bar-ad-007-1280x720

যেভাবে কাজ করে টাচবারঃ

টাচবার আদতে কি বোর্ডের উপরে চিকন ষ্ট্রিপের মতো একটা টাচ ডিসপ্লে, যেখানে আপনি এতদিন ফাংশন কি এবং Esc কি দেখেছেন, সেই জায়গায় দেখা যাবে একটা এলসিডি স্বল্প প্রশস্ত লম্বা টাচ স্ক্রিন, এ মাথা থেকে ও মাথা; যেটা ক্ষনে ক্ষনে বদলাবে আপনি ল্যাপটপে কোন প্রোগ্রামটি ব্যবহার করছেন সেটার উপর ভিত্তি করে। ধরুন, আপনি ওয়েব ব্রাউজার ব্যবহার করছেন, এটি তখন দেখাবে আপনার সদ্য ভিজিট করা কিংবা ফেভারিটসে রাখা ওয়েব সাইটগুলোর ঠিকানা। এছাড়াও এর রয়েছে বিবিধ ব্যবহার। স্ক্রিনের উজ্জ্বলতা, কিংবা গানের ভলিউম নিয়ন্ত্রনের কাজেও টাচবার ব্যবহার করা যাবে। আবার যখন কোন কিছু টাইপ করবেন, তখন টাচবারে আপনাকে শব্দ-পরামর্শ (word-suggestion) দিবে। আবার যখন কারো সাথে চ্যাট করবেন, বা ম্যাসেজ পাঠাবেন, তখন সেখানে অনেকগুলো ইমোজির ছবি ভেসে উঠবে, সেখান থেকে যেটা ইচ্ছে আপনি আঙ্গুল দিয়ে টাচ করে পাঠিয়ে দিবেন।

images

 

Comments

মন্তব্য করুন

এই বিভাগের অন্যান্য পোস্ট

Related Post Img

তথ্য ও প্রযুক্তি

%d bloggers like this: