ট্রেন্ডিং নিউজ

বৈদ্যুতিক গাড়ীর বহরে এবার কি তবে বাংলাদেশও নাম লেখালো?

কিভাবে IELTS-এ ভালো ফলাফল করবেন?

ইংরেজীতে “তাই না?” ব্যবহার করার কিছু সহজ টিপস!

খেয়ে আসুন আদিবাসীদের সুস্বাদু খাবার ”মুন্ডি”

তবে কি জাপানিজরা শীঘ্রই বিলুপ্তির পথে?

বৃহস্পতিবার ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮

বহুল প্রতিক্ষীত হাইপারলুপ এ বছরের শেষের দিকে চালু হবে!

ছবি: হাইপারলুপ ওয়ান (ট্রাক)
কিছুদিন আগে টানেলিং ভেনচার ‘দ্য বোরিং কোম্পানি’ এর মালিক, সেলিব্রেটি বিলিওনিয়ার ইলন মাস্ক তার ইনন্সট্রাগ্রাম একাউন্টে মোবাইলে ক্যামেরায় ধারন করা তার নিজস্ব আন্ডার গ্রাউন্ড টানেলিং প্রজেক্ট হাইপারলুপ এর একটি ছোট্ট ভিডিও চিত্র প্রকাশ করেছেন (এই আর্টিকেলের নীচে সেটি দেখতে পাওয়া যাবে)।

তিনি বলেছেন, ১৭ মাইল লম্বা এই টানেলটি এই বছরের শেষের দিকেই জনগনের জন্য খুলে দেয়া হবে, এবং এটির টিকেট মূল্য হবে গড়পড়তা একটা বাসের টিকেটের চাইতেও কম। তবে শুরুর দিকে পরীক্ষামূলক যাত্রাগুলো স্থানীয় জনগন সম্পূর্ণ বিনামূল্যেই ব্যবহার করতে পারবেন।

ছবি: হাইপারলুপ ওয়ান টেষ্ট গাড়ি

আপাততঃ শুধু আমেরিকার লস এ্যাঞ্জেলস শহরের নীচ দিয়েই্ এটিকে গড়া হচ্ছে। ভবিৎষতে এটির সাথে যুক্ত করা হবে ক্যালিফোরনিয়া শহরকেও। তবে বোদ্ধারা বলছেন, তার এই প্রজেক্টটি বেশ কয়েকটি বাধার সম্মুখিন হবে। যথাঃ

১) সরকার কর্তৃক পরিবেশ গবেষণা, যেটির কারণে এটি কয়েক বছর পিছিয়ে যেতে পারে। মাস্কের এই টানেলের কারণে পরিবেশের উপর বিরূপ প্রভাব পড়বে কিনা, সেটা খতিয়ে দেখতে এই সময় লাগতে পারে।

২) যেখান দিয়ে টানেল খোঁড়া হবে, সেখানে বেশ কয়েকটি স্থাপনাজনিত ঝুঁকি রয়েছে। যেমনঃ পুরনো জ্বালানি তেলের গুদাম/মজুত।

ছবি: হাইপারলুপ ওয়ান ১

৩) টানেল খুঁড়তে মাস্ককে আলাদা আলাদা করে প্রতিটা বাড়ীর মালিকের কাছে অনুমতি নিতে হবে, যাদের বাসার নীচ দিয়ে টানেল যাবে।

৪) বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই টানেল আদলে ট্রাফিক জ্যাম বাড়াবে বৈ কমাবে না। কারণ, এটাতে ঢুকার মুখ খুব সরু, গাড়ী ভীড় করে এটাতে ঢুকবে, আর বেরুবে, তাই টানেলের দুই মাথাতেই জ্যাম হবার সম্ভাবনা প্রবল।

৫) সব ধরনের যাত্রীরা এটাকে সমভাবে ব্যবহার করতে পারবেন কিনা, কিংবা যত টাকা বিনিয়োগ করা হচ্ছে, সেই অনুপাতে উপযোগীতা পাওয়া যাবে কিনা, সে বিষয়ে অনেকেই সন্দেহ পোষন করছেন!

ছবি: হাইপারলুপ ওয়ান

দেখা যাক, মাস্কের হাইপারলুপ দ্বারা লস এনজেলসবাসী শেষ পর্যন্ত কতখানি উপকৃত হয়! ২০২০ সালের ভেতর এটির কাজ পুরোপুরি শেষ হবার কথা। তো এখন সবকিছু মিলিয়ে আমাদের মনে হচ্ছে, খুব শীঘ্রই ইলন মাস্কের উচিত তার এই কোম্পানির নাম দ্য বোরিং কোম্পানির বদলে এর নাম রাখা “দ্য এক্সাইটিং কোম্পানি!”

সূত্রঃ 

ইলন মাস্ককে নিয়ে আরো পড়ুনঃ

উৎপাদনশীলতার ৬টি টিপস!

হাইপারলুপ এর যে ভিডিওটি ইলন মাস্ক ইন্টারনেটে প্রকাশ করেছিলেনঃ

 

Comments

মন্তব্য করুন

এই বিভাগের অন্যান্য পোস্ট